Home / আজকের লেখক / আমার লেখার অধিকাংশই নারী বিষয়ক-ক্যামেলিয়া আলম

আমার লেখার অধিকাংশই নারী বিষয়ক-ক্যামেলিয়া আলম

আমার লেখার অধিকাংশই নারী বিষয়ক

ক্যামেলিয়া আলম মূলত একজন ছোটগল্পকার। নিজের লেখায় তিনি সুন্দরের উপর অসুন্দরের আঘাতটুকুুকে পাঠকের হৃদয়ে উপলব্ধি করাতে প্রয়াসী। তার লেখালেখিতে মূলত নারী বিষয় প্রাধ্যান্য পায়। পেশায় তিনি একজন শিক্ষক। বর্তমানে তেজগাঁও কলেজে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত। ২০২১ সালের বইমেলায় হাসান’স প্রকাশনা থেকে প্রকাশ পাবে তার ছোটগল্পের বই ব্রুণফেলসিয়া। বইনিউজ ২৪ ডট কম কে তিনি তার নতুন বই সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত সাক্ষাৎকার দিয়েছেন।

প্রশ্ন: ২০২১ সালে আপনার কয়টি বই প্রকাশ পাবে? বইয়ের ধরণ ও প্রকাশনার নাম বলুন।
উত্তর: ২০২১ সালে আমার একটি বই প্রকাশিত হতে যাচ্ছে। বইটি প্রকাশ করবে হাসান’স প্রকাশনা। এটি আমার প্রথম গল্পগ্রন্থ। মূলত বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় প্রকাশিত কয়েকটি ছোটগল্পের পাশাপাশি নতুন কিছু ছোটগল্প নিয়ে প্রকাশিত হচ্ছে বইটি। নাম রাখা হয়েছে ব্রুণফেলসিয়া।

প্রশ্ন: ভার্চুয়াল বইমেলা থেকে আপনি কী প্রত্যাশা করেন?

উত্তর: ভার্চুয়াল বিষয়টি খানিকটা প্রচারণা নির্ভর মাধ্যম। সেক্ষেত্রে পাঠকের একটা সুবিধা হয়, তারা খুব দ্রুতই খুঁজে নিতে পারে তাদের পছন্দমতো বই। অনেকেই তার প্রয়োজনীয় বইটি হয়তো কোথায় আছে না জানার ফলে পেতে ব্যর্থ হয়। সেদিক থেকে এটি একটি বড় সহায়ক কার্যক্রম। আর লেখকের দিক থেকে সুবিধা দ্রুতই নিজের বইয়ের পরিচিতি ছড়ানো। যদিও করোনাকালীন পরিস্থিতিতে এমন বিষয়ের অবতারণা। তবে বাংলাদেশে এখন ভার্চুয়াল কেনা বেচা জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। ফলে বৌদ্ধিক এই উপাদানকে আর পেছনে ফেলে রাখার উপায় নেই। ভার্চুয়াল মেলা মানেই দেশে হোক, বিদেশে হোক প্রতিটি স্থান থেকে প্রত্যেকের অংশগ্রহণের অবস্থান তৈরি হওয়া। এ বইমেলা থেকে প্রত্যাশা একটাই, সহজ অপশনে যেন প্রত্যেকে এন্ট্রি নিতে পারে। পাঠকদের আর লেখকদের কর্নারে যার যার বই সম্পর্কে অভিমত প্রকাশ করার স্পেস যেন থাকে!

প্রশ্ন: আপনার লেখায় কোন বিষয়টি প্রাধান্য পায়?

উত্তর: আমার লেখার অধিকাংশই নারী বিষয়ক। গল্পের বিষয়বস্তুতেও নারী বারবারই চলে আসে। তবে নারীর বহুমাত্রিক সংকটগুলো বেশি থাকলেও সমাজের নানান অনাকাক্সিক্ষত ঘটনাও স্থান পেয়েছে গল্পগুলোয়। হয়তো কখনও পত্রিকার কোন খবর পড়ে, হয়তো কখনও কাছের কোন মানুষের ঘটনাকে লেখার উপজীব্য হিসেবে নিয়েছি। সুন্দর সবসময়ই অসুন্দরকে দিয়ে কুঁকড়ে যায়, আঘাতপ্রাপ্ত হয়। তেমন এক বোধ লেখাগুলোয় ঘুরে ফিরে চলে এসেছে। সাহিত্য বলার সাহস করছি না, বরং আমার ভাবনাটুকু প্রকাশ করছি, সুন্দরের উপর অসুন্দরের আঘাতটুকুুকে উপলব্ধি করাতে চাইছি। বাকিটুকু পাঠকের উপর। যে কোন গঠনমূলক সমালোচনা প্রত্যাশা করছি বইকে ঘিরে।
বইনিউজ ২৪ ডট কম কে ধন্যবাদ। চমৎকার এই ইভেন্ট বহু লেখকের বই সম্পর্কে আমাদের পরিচিত হতে সহায়তা করবে।