Home / সবিশেষ / কোনো শক্তি নেই অ-কবিকে কবি বানাতে পারে-আসমা বীথি

কোনো শক্তি নেই অ-কবিকে কবি বানাতে পারে-আসমা বীথি

                                                                                                 Asma-Beetheআসমা বীথি

আসছে একুশে বইমেলা ২০১৬। কবি আসমা বীথি-এর সাথে বইনিউজের কথা হয় তাঁর নতুন-পুরাতন বই-সাহিত্য-বইমেলা নিয়ে। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন বইনিউজের সম্পাদক রবীন আহসান।

বইনিউজ : আসছে একুশের বইমেলায় আপনার কী কোন নতুন বই প্রকাশিত হচ্ছে?
আসমা বীথি : কবিতার বই প্রকাশিত হচ্ছে, চৈতন্য থেকে। টুকরো হয়ে ছড়িয়ে পড়ি।

বইনিউজ : বাংলাদেশের সমাজে নানা ধরণের আন্দোলন সংগ্রাম হচ্ছে কিন্তু কবিতায় এর কোন প্রভাব পড়ছে না কেন?
আসমা বীথি : হচ্ছে কই ! আন্দোলন-সংগ্রাম দানা বেঁধে জাগ্রত হতে পারছে না, কবিতা তো বিচ্ছিন্ন কিছু না; প্রভাব পড়বে কী করে !

বইনিউজ : আপনার লেখালেখির শুরুটা কখন থেকে? প্রথম বই কবে প্রকাশিত হয়? প্রথম বই প্রকাশের কোন মজার ঘটনা পাঠকের সাথে শেয়ার করতে চান?
আসমা বীথি : ২০০৬ থেকে। কবিতার কাগজ চর্যাপদে কবিতা লিখতে গিয়ে আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে গেলাম কবিতার সঙ্গে। প্রথম বই প্রকাশিত হয় ২০১০ সালে, ‘আধখাওয়া ফলের জীবনী’। ঐতিহ্য প্রকাশনী বইটি প্রকাশ করে। ফল বলতেই লোকে আপেল ভাবে কেন জানি না। অনেকেই স্মুতি হাতড়ে বলেছে ‘ আপনার বইটার নাম যেন কী, আধখাওয়া আপেলের জীবনী…।‌’ মজার কথা বলতে গিয়ে পীড়ার কথা আসল।

বইনিউজ : আপনি কী মনে করেন প্রকৃত কবিতা চর্চার মানুষ কমে যাচ্ছে?
আসমা বীথি : প্রকৃত কবিতা-চর্চার মানুষ সব যুগেই কম ছিল। তবে এখন আরও কম। মানুষের চিন্তাস্রোতে প্রতি-মুহূর্তে এত ভাবনা এসে যুক্ত হচ্ছে যে; একটি ভাবনায় মানুষ অনেকক্ষণ স্থির হয়ে থাকতে পারছেনা, বুঁদ হয়ে থাকতে পারছে না। যার ফলে গভীরতা কমে যাচ্ছে। ভাবনার গভীরতা কমে গেলে শুধু কবিতা না, যে-কোনো শিল্পই হবে উপরিতলের।

বইনিউজ : কবিতা লেখার চেয়ে কবিরা অনেক বেশী মিডিয়া নির্ভর হয়ে যাচ্ছে, মিডিয়া কী আসলে কাউকে বড় কবি বানাতে পারে?
আসমা বীথি : মিডিয়া এত ব্যাপক জাল বিস্তার করে আছে, কবি-শিল্পীরা সহজেই সেই জালে ধরা দিচ্ছে। মিডিয়া বড়জোর একটা পরিচিতি এনে দিতে পারে। সেই পরিচিতি কালের বিচারে টিকবে না, যদি না সেই কবির মৌলিক কিছু থাকে। আর আমার জোর বিশ্বাস শুধু মিডিয়া কেন, এমন কোনো শক্তি নেই অ-কবিকে কবি বানাতে পারে। কবির কাজ শুধু লিখে যাওয়া। প্রকৃত কবির কবিতাকে পাঠকের হৃদয় ঠিক চিনে নেবে, আজ অথবা কাল।

বইনিউজ : সাম্প্রতিক সময়ে কবিতার বইয়ের পাঠক প্রায় শূন্যের কোঠায় নেমে গেছে, এই অবস্থার পরিবর্তনের জন্য দায়ী কে? এক্ষেত্রে পরিবর্তন কীভাবে সম্ভব?
আসমা বীথি : শূন্যের কোঠায় নেমে গেছে মনে করি না। আমরা হয়তো খবর রাখি না।

বইনিউজ : আপনার প্রিয় কবি কে? কোন কোন কবিতার বই আপনাকে একজন কবি হিসেবে প্রভাবিত করেছে?
আসমা বীথি : অসংখ্য। বিভিন্ন সময়ে অনেক বই প্রভাবিত করেছে। এখনই মনে পড়ছে অমিয় চক্রবর্তীর ‘এক মুঠো’, শঙ্খ ঘোষের ‘গান্ধর্ব্য কবিতাগুচ্ছ’। আর খুব সম্প্রতি পড়ার কালে মিঠুন রাকসামের ‘দলিলে ভাটপাড়া গ্রাম’ ভাল লেগেছে।

বইনিউজ : বাংলা একাডেমি আয়োজিত একুশের বইমেলা নিয়ে কবি হিসেবে আপনার কোন পরামর্শ আছে কী?
আসমা বীথি : ২০১১-এর পর আর যাওয়া হয়নি। অনেক পরিবর্তন হয়েছে শুনেছি। সব বিষয়ে পরামর্শ দেওয়ার মতো জ্ঞানী নই।