Home / খবর / ফারজানা মিতুর ৬ উপন্যাসের মোড়ক উন্মোচন

ফারজানা মিতুর ৬ উপন্যাসের মোড়ক উন্মোচন

Farzana Mitu

প্রযুক্তির কারণে মানুষ তাদের অনুভূতিগুলো দিনে দিনে হারিয়ে ফেলছে। ফলে মানুষের হৃদয়ে এখন প্রেমের বড়ই অভাব। সেই প্রেমকে জাগিয়ে তুলেছেন, সঙ্গে প্রেমকে নতুন করে সংজ্ঞায়িত করারও চেষ্টা করেছেন ঔপন্যাসিক ফারজানা মিতু।

শনিবার (৩০ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় শাহবাগ পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে ফারজানা মিতুর ছয়টি উপন্যাসের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে বক্তরা একথা বলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিশু সাহিত্যিক আলী ইমাম বলেন, ফারজানার মধ্যে মানবিক সত্তা খুবই প্রখর। হয়তো এ কারণে যখন আমাদের জীবন প্রযুক্তির ছোঁয়ায় ফ্যাকাশে হয়ে উঠছে, তখন তিনি তার লেখায় প্রেমকে জাগিয়ে নতুন করে সংজ্ঞাও দেওয়ার চেষ্টা করেছেন। সেই সঙ্গে তার লেখায় প্রেম, বিরহ, ভালোবাসা, ব্যক্তিগত ও সামাজিক সম্পর্কের টানাপড়েনসহ বিভিন্ন দিক তুলে এনেছেন।

তিনি আরও বলেন, বিত্ত মানুষকে সমৃদ্ধ করে না, সমৃদ্ধ করে চিত্ত। আজ চারিদিকে শুধুই বিত্তের প্রতিযোগিতা। তাই চিত্তকে জাগানোর জন্য এমন লেখা খুবই প্রয়োজন।
আরেক শিশু সাহিত্যিক রহিম শাহ বলেন, প্রত্যেক মানুষের মধ্যেই একজন করে মনীষী থাকেন এবং তার লেখায় সেটা বের হয়ে আসে। ফারজানার লেখায় সমাজের বিভিন্ন দিক উঠে এসেছে।
কবি ও ঔপন্যাসিক ফারজানা মিতু তার বক্তব্যে বলেন, আমার লেখায় সমাজের অসঙ্গতি, সম্পর্কের টানাপড়েন, একজনের চাওয়া-পাওয়ার  কারণে একটি পরিবার কীভাবে ধ্বংস হয়, ভুলের কারণে মানুষের জীবনে কি পরিণতি হয়- সেই দিকগুলো উঠে এসেছে।
তিনি আরও বলেন, প্রতিটি লেখাই লেখকের কাছে সন্তানতুল্য। আমিও চেষ্টা করেছি লেখাকে সন্তানের রূপ দিতে। জানি না কতটুকু পেরেছি আর পারিনি। তবে সবটুকু বিচারের ভার দিলাম আমার পাঠকের উপর। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড‍া. কামরুল হাসান খান, কথা সাহিত্যিক ও প্রকাশক মইনুল আহসান সাবের।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন অভিনেত্রী ও লেখক শিরীন বকুল।
অনুষ্ঠানে ফারজানা মিতুর ‘তোমাতে করিবো বাস’, ‘আমার অদৃষ্টে তুমি’, ‘কেটেছে একেলা বিরহের বেলা’, ‘ভালোবেসে রুমাল দিতে চাই’, ‘পথে যেতে যদি আসি কাছাকাছি’ ও ‘যে আঁধারে তুমি নেই’ নামে ছয়টি উপন্যাসের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।
উপন্যাসগুলো প্রকাশ করেছে প্রকাশনী সংস্থা দিব্য প্রকাশ।