Home / বই আলাপ / শরৎচন্দ্রের দেবদাস পাঠের পর প্রেম কেবলই আমাকে মোহগ্রস্থ করে রাখতো-মিলটন রহমান

শরৎচন্দ্রের দেবদাস পাঠের পর প্রেম কেবলই আমাকে মোহগ্রস্থ করে রাখতো-মিলটন রহমান

 

m-rবইপড়া আর নিজের প্রিয় বই নিয়ে বলেছেন কবি-কথাশিল্পী মিলটন রহমান ।

 

বইনিউজ : প্রথম কোন বই পড়ে আপনি সবচেয়ে বেশী প্রভাবিত হয়েছেন?
মিলটন রহমান : কৈশোরে বই কেনার জন্য চব্বিশ মাইল পাড়ি দিয়ে যেতাম চট্টগ্রাম শহরে। এক একবার বই কিনতাম চার কিংবা পাঁচটা, কিন্তু বই দোকানের প্রিয় বইগুলোর মলাট উল্টেপাল্টে কাটিয়ে দিতাম কয়েক ঘন্টা। সম্ভবত নজরুলের ‘সঞ্চয়িতা‘ পাঠের পর আসক্ত হয়ে পড়ি। এছাড়া রবীন্দ্রনাথের ছোট গল্প, উপন্যাস ‘দুই বোন’, ‘শেষের কবিতা’, কাব্যগ্রন্থ ‘সঞ্চিতা’, জীবনানন্দ দাশের ‘রূপসী বাংলা’, শরৎচন্দ্রের ‘দেবদাস’ আরো অনেক রচনা প্রথম দিকে আমাকে প্রভাবিত করে।

বইনিউজ : কোনো বই পড়ার পর সেই বইয়ের কোন চরিত্রের মতো হওয়ার বা তাকে অনুসরণ করার কী কখনো চেষ্টা করছেন? করে থাকলে পাঠকদের উদ্দ্যেশ্যে বিস্তারিত বলুন?
মিলটন রহমান : আমার প্রিয় বইগুলোর প্রিয় চরিত্রও কম নয়। এক এক সময় ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রের সাথে নিজেকে মিলাতাম। বিভূতিভূষন বন্দোপাধ্যায়ের ‘পথের পাঁচালী’ পাঠের পর মনে হতো অপু আমার মাঝে স্থাপিত হয়ে গেছে। শরৎচন্দ্রের দেবদাস পাঠের পর প্রেম কেবলই আমাকে মোহগ্রস্থ করে রাখতো। এভাবে আরো অনেক চরিত্র আছে, যেগুলো আমাকে ভীষন প্রভাবিত করেছে। তবে আর্নেষ্ট হ্যামিংওয়ের ‘দি ওল্ডম্যান এন্ড দ্য সি‘ পাঠের পর আমি সেই বৃদ্ধের মত হতে চাইতাম। এতো সাধনা, এতো ধৈর্য্য আমি আর কখনো দেখিনি। আমি এখনো সেই বৃদ্ধকে অনুসরন করি।

বইনিউজ : আপনার পঠিত বাংলা সাহিত্যের সেরা একটি উপন্যাস পড়ার মজার স্মৃতি পাঠকদের সাথে শেয়ার করুন।
মিলটন রহমান : মানিক বন্দোপাধ্যায়ের ‘পদ্মানদীর মাঝি’ কতবার পাঠ করেছি মনে নেই। কারণ কুবের আর কপিলার মাঝে যে ফ্রয়েডীয় মনোবিকলনের দৃশ্য, তাতে আমি পুরোপুরিই নেশাগ্রস্থ ছিলাম। মনে মনে অসংখ্য রমনীর মাঝে কপিলাকে খুঁজেছি। কুবেরের স্থানে নিজেকে বসিয়েছি। এখনো সুযোগ পেলে আমি ‘পদ্মানদীর মাঝি’ পাঠ করি।

বইনিউজ : আপনার জীবনযাপন, চিন্তাধারা ইত্যাদি বদলে দেয়ার ক্ষেত্রে কোন বইয়ের অবদান রয়েছে কী? থাকলে সে ব্যাপারে আমাদের পাঠকদের বিস্তারিত জানান?
মিলটন রহমান : আমার জীবন এবং চিন্তা-দর্শন বদলে দেয়ার ক্ষেত্রে অনেকগুলো গ্রন্থের ভূমিকা রয়েছে। তাই বলে আমি আদর্শ জীবন গড়ার জন্য ডা:লুৎফুর রহমানের বই পাঠ করি নি। নজরুল আমার জীবনে প্রেম এবং বিদ্রোহের চেতনা রোপন করেছেন। রবীন্দ্রনাথ আমাকে প্রেম শিখিয়েছে। আখতারুজ্জামান ইলিয়াস, কমলকুমার মজুমদার, অনিল ঘড়াই, সৈয়দ মোস্তফা সিরাজ, মাহমুদুল হক, শওকত আলী, হুমায়ূন আজাদ আমার জীবনকে লেখকের জীবনে ঠেলে দিয়েছেন। আমি এঁদের পাঠ করার পর কেবল লেখক হতে চেয়েছি। আর কিছুই আমাকে স্পর্শ করে নি। ইংল্যান্ডের আসার আগে টেড হিউজ এবং সিলভিয়া প্লাথ আমার প্রিয় পাঠ্যে ছিলো। এই দেশে এখন স্থায়ীভাবে বসবাসের ফলে এই দুই কবির অনেক রচনা আমি কেতাবের মত পাঠ করি। আমি সিলভিয়া প্লাথকে লন্ডনে পথে পখে খুঁজি!

বইনিউজ : সম্প্রতি পড়েছেন এমন একটি ভালো বই সম্পর্কে আপনার অভিজ্ঞতা আমাদের পাঠকদের জানান?
মিলটন রহমান : বর্তমানে কয়েকটি গ্রন্থ পাঠ করছি। তারমধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো ফিউনা স্যামসন এর বিয়ন্ড দ্য লিরিক‘ সম-সাময়িক ব্রিটিশ কবিদের রচনা নিয়ে গভীর বিশ্লেষন। ইংরেজ কবিদের রচনার বিভিন্ন প্রসঙ্গ, অনুসঙ্গ এবং প্রভাবসহ বিবিধ বিষয় রয়েছে এ গ্রন্থে।