Home / বই আলাপ / আমার গল্প বা কবিতায় একটু ভিন্নতা আছে-মো. মালেক জোমাদ্দার

আমার গল্প বা কবিতায় একটু ভিন্নতা আছে-মো. মালেক জোমাদ্দার

joঅমর একুশে গ্রন্থমেলা নিয়ে বইনিউজ২৪.কম এর সাথে কথা বলেছেন কবি মো. মালেক জোমাদ্দার।

১। লেখালেখিতে আপনি কোন মাধ্যমে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন ?
মো. মালেক জোমাদ্দার: ছোটবেলা থেকেই কমবেশি কবিতা লিখতে চেষ্টা করতাম । স্কুল কলেজের বার্ষিক প্রকাশনায় কবিতা-গল্প লিখতাম। জাতীয় দৈনিকে চিঠি পত্রের কলামে লিখেছি । অনলাইন ব্লগে কবিতাকেই আমি বেশি প্রাধান্য দিতাম । গল্প লিখতেও আমার বেশ ভালো লাগে তবে কবিতাই আমার প্রাণ। এখন ভার্চুয়াল মাধ্যমে লিখতেই বেশী স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি।

২। আপনার কি কি বই প্রকাশিত হয়েছে?
মো. মালেক জোমাদ্দার: একক কাব্যগ্রন্থ-ভালোবাসার বৃষ্টি, গল্পগ্রন্থ- নারী এবং , সম্মিলিত গল্প সংকলন : মুক্তিযুদ্ধ ও অন্যান্য গল্প, নক্ষত্র সংকলন, কাব্য সংকলন : স্বপ্নগুলো উড়িয়ে দিলাম, এছাড়া আরও ৩টি সংকলনে আমার লেখা প্রকাশ হবে একুশের বই মেলায়।

৩। হাজার কবিতার বইয়ের ভিড়ে পাঠক কেন আপনার বই পড়বে ?
মো. মালেক জোমাদ্দার: আমার গল্প বা কবিতায় একটু ভিন্নতা আছে। আমার কবিতাগুলো গ্রাম, শহর, গরীব, ধনী, বর্ষা,খরা, প্রেম বিরহ সহ ভিন্ন ভিন্ন বিষয়ের উপর লেখা। প্রতিটা কবিতাই ভিন্ন ভিন্ন বিষয় নিয়ে লেখা । মা-বাবাকে নিয়ে যেমন কবিতা আছে তেমনি প্রেমের কবিতা, নারীদের জীবনের বাঁধাসমূহ ও সাফল্য নিয়ে কবিতা লেখা হয়েছে। সব বয়সের পাঠকের কাছেই ভালো লাগবে বলে আশা করছি।
গল্পগুলো জীবন থেকে নেয়া। নারীদের সুখ-দুঃখ, আনন্দ-বেদনা, সাফল্য গাঁথা নিয়ে আমার গল্পগুলো। জীবনের পড়ন্ত বিকেলে অসহায়ত্ব যেমন বেদনার তেমনি ছোটবেলার দুষ্টুমিগুলো ও গল্পের মাঝে প্রফুল্ল দিবে পাঠক মনে।

৪। আপনার বইগুলো কোথা থেকে প্রকাশিত হচ্ছে ?
মো. মালেক জোমাদ্দার: এক রঙ্গা এক ঘুড়ি। পরিবেশক হিসেবে রয়েছে দেশের খ্যাতনামা শ্রাবণ প্রকাশনী। একক কাব্যগ্রন্থ-ভালোবাসার বৃষ্টি, গল্পগ্রন্থ- নারী এবং… এবং
গল্প সংকলন: জলছবি বাতায়ন প্রকাশন/ম্যাগনাম ওপাস, হাওলাদার প্রকাশনী উল্লেখযোগ্য।

৫। অমর একুশে গ্রন্থমেলা সম্পর্কে আপনার মূল্যায়ন কি?
মো. মালেক জোমাদ্দার: যাদের জন্যে আজ আমরা বাংলা ভাষায় বলছি,লিখছি অমর একুশে গ্রন্থমেলা তাঁদের কথা মনে করিয়ে দেয়
অত্যাচারীর অন্যায় আবদার মেনে নেয়নি যারা
লাল সবুজের পতাকার বীজ বুনেছিলেন তাঁরা
চুয়াল্লিশ ধারা ভঙ্গ করে জীবন করলেন দান
তাঁরা হলেন ভাষা শহিদ দেশের সু সন্তান।।
তাঁদের স্মরণ করতেই অমর একুশে গ্রন্থমেলা লক্ষ পাঠকের প্রাণের উৎসব হয়ে উঠছে । প্রতিবছর বই মেলায় লেখক ও প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানগুলো পাঠকের কাছে তুলে ধরেন জীবনে ঘটনাবলী । কবি লেখকের লেখনীতে তা ফুটে উঠে চমৎকার ভাবে । সাহিত্যের সব শাখা প্রসারিত হচ্ছে দিনে দিনে । বাংলা সাহিত্যকে করছে সমৃদ্ধশালী । বইমেলার অবকাঠামোগত উন্নয়ন আরও প্রয়োজন, প্রয়োজন আমলাতান্ত্রিক জটিলতা দূর করা। লেখক পাঠক সমাগমের সুবিধার জন্য গেট এবং মেলা প্রাঙ্গণে চলাচলের পথ সুগম জরুরী। সরকারের পক্ষ থেকে তরুণ কবি লেখকদের আরও উৎসাহ দেয়া উচিত বলে আমি মনে করি।

বই নিউজ ২৪. কম কে আমার পক্ষ থেকে অনেক অনেক ধন্যবাদ ।